নেত্রকোনায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ভ্রাম্যমান আদালতে ১৮ লাখ টাকা জরিমানা

নেত্রকোনায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ভ্রাম্যমান আদালতে ১৮ লাখ টাকা জরিমানা

এ কে এম আব্দুল্লাহ, নেত্রকোনা ঃ নেত্রকোনা সদর উপজেলার মেদনী ইউনিয়নের বড়ওয়ারী এলাকায় কংশ নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে পাঁচ বালু ব্যবসায়ীকে ১৮ লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।
     জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার (ভূমি) সদর ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট বুলবুল আহমেদ এবং সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ শাহীন মাহমুদ গতকাল রবিবার সকাল ৬টা থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত পৃথক ভাবে এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।
      সহকারী কমিশনার মোঃ শাহীন মাহমুদ সাংবাদিকদের জানান, ‘ওই ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন ধরে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে কংশ নদী থেকে অবৈধ ভাবে ড্রেজার মেশিনের মাধ্যমে বালু উত্তোলন করে আসছিল। এতে করে কংশ নদীর ওপর বড়ওয়ারী সেতুসহ আশপাশের এলাকা নদী ভাঙ্গণের হুমকির মুখে পড়েছে।
      রবিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সকাল ৬টা থেকে বেলা ২টা পযন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে পাঁচজন বালু ব্যবসায়ীকে বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৪ ধারায় বর্ণিত অপরাধে ১৫ ধারা মতে মোট ১৮ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। পরে বালু ব্যবসায়ীরা জরিমানার টাকা পরিশোধ করে ছাড়া পান। জরিমানা পরিশোধকারী ব্যবসায়ীরা হলেন, মোঃ নাজিম উদ্দিন, মোঃ আবুল মিয়া, মোঃ জাহাঙ্গীর, মোঃ শামীম মিয়া ও মামুন মিয়া। তাঁদের মধ্যে নাজিম ও আবুলকে ৫ লাখ করে ১০ লাখ, জাহাঙ্গীর ও শামিমকে ৩ লাখ করে ৬ লাখ ও মামুনকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।
        এ সময় নদী থেকে উত্তোলিত প্রচুর পরিমাণ বালু জব্দ করা হয়। জব্দ করা বালু নিলামে বিক্রির প্রস্তুতি চলছে। একই সাথে জব্দ করা একটি ড্রেজার মেশিনসহ বিপুল পরিমাণ প্লাস্টিকের পাইপ আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়।
আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবস উপলক্ষ্যে