অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফাকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই

অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফাকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চাই

শফিকুজ্জামান
 জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর এখন দেশব্যাপী বইছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের হাওয়া।
পূর্বধলা  উপজেলা নির্বাচনে এবার আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে পূর্বধলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক  সম্পাদক ও জটিয়াবর মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ও প্রতিষ্ঠাতা  গোলাম মোস্তফাকে নির্বাচনী মাঠে দেখতে চাই পূর্বধলা উপজেলা বাসী।
তিনি আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাবে বলে বিশ্বাসী তৃনমূলের নেতাকর্মীরা।
ইতিমধ্যে তার পক্ষে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের তৃনমূলের নেতাকর্মীরা প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। উপজেলা বাসীর লক্ষ একটাই পূর্বধলা উপজেলার উন্নয়নে এ সাবেক ছাত্রনেতাকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারে বসাতে হবে। তিনি ২০০৪ সাল থেকে পূর্বধলা উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে অদ্য পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করছেন।
বর্তমানে তিনি পূর্বধলা উপজেলা আওয়ামীলীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক,রাবেয়া আলী মহিলা ডিগ্রী কলেজের গভণিং বডির সভাপতি।
ছাত্র জীবনে তিনি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য, বঙ্গবন্ধু হলের ছাত্রলীগের সদস্য ও ১৯৯০ সনে ডাকসু’র বঙ্গবন্ধু হল সংসদে নাঠ্য ও সামাজিক  সম্পাদক। এছাড়া তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের,আনন্দমোহন সরকারি কলেজ শাখার নেতৃত্ব দিয়েছেন।
অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা এলাকাব্যাপী ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। আছে সচ্ছতা ও বিচক্ষণতা।
এমতাবস্থায় তাকে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত করলে তিনি এ উপজেলার উন্নয়নে সচ্ছতা ও বিচক্ষণতার সাথে কাজ করে উপজেলাকে এগিয়ে নিতে পারবেন বলে মনে করেন তৃনমূল নেতাকর্মী সহ সর্ব স্তরের জনসাধারণ।
অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা  ইকরা প্রতিনিনকে বলেন, মানুষ এখন উন্নয়ন চায়। তাই এলাকার উন্নয়ন ও দলের স্বার্থে সচ্ছ ও বিচক্ষণ সাথে অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা ইকরা প্রতিদিনকে বলেন, আগামি দিনে বিরোধীদলের আন্দোলন সংগ্রাম মোকাবেলায় আলহাজ্ব ওয়ারেসাত হোসেন বেলাল(বীর প্রতীক) মহোদয়ের হাতকে শক্তিশালী করতে জননেত্রী শেখ হাসিনা দলীয় মনোনয়ন দেবেন  আমাকে আমি আশা করি।
এই উপজেলার কয়েকজন ভোটা  বলেন, এই মানুষটির যথাযথ মুল্যায়ন হওয়া উচিৎ। সারা জীবন আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত থেকে তিনি সাংগঠনিক ভাবে সংগঠনকে এগিয়ে দেবার সহযোগিতা করে চলেছেন। কোনদিন কোন রাগ, ক্ষোভ, অভিমান তার ভিতর দেখিনি। সদা হাসিমুখে দলীয় সকলের সাথে মিশে আছেন। জননেত্রীর নিকট আমাদের আবেদন তাকে একবার উপজেলার প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ দিন। উপজেলাবাসী আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফাকে নির্বাচনী মাঠে  দেখতে চাই।