মদনে গণধর্ষণ ঘটনায় মামলা

মদনে গণধর্ষণ ঘটনায় মামলা

মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধিঃ নেত্রকোনার মদন উপজেলার গোবিন্দশ্রী বারঘরিয়া গ্রামে গণধর্ষণ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে ২জন কে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ৯(৩) ধারায় মদন থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ শনিবার ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নেত্রকোনার আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন।
মামলা সূত্রে জানা যায়, গোবিন্দশ্রী বারঘরিয়া গ্রামের ইয়াসিনের মেয়ে ও বারঘরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেনির শিক্ষার্থী ২৭ জুলাই ২০১৯ ইং সন্ধ্যায় পাশের বাড়ির মৃত হাবুল মিয়ার টিউবওয়েল থেকে পানি আনতে গেলে কৌশলে হাবুল মিয়ার ছেলে পলক তাদের নির্জন ঘরে নিয়ে একই পাড়ার মতি মিয়ার ছেলে অনিক পালাক্রমে জোর পূর্বক তাকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনাটি তার বাবা মাকে জানালে তারা আশেপাশের বাড়ির লোকজনকে জানায়। তারা ঘটনা নিস্পত্তি করার জন্য সময় অতিবাহিত করলে বিচারের আশ্বাস না পেয়ে শুক্রবার রাতে ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে মদন থানায় ২ জনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।  
ধর্ষিতার বাবা ইয়াসিন মিয়া জানান, আমার শিশু মেয়েটিকে পলক ও অনিক মিলে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। তার শাররিক অবস্থা ভালো না। বাড়ির লোকজন মিথ্যা আশ্বাসে সময় অতিবাহিত করছে বুঝতে পেরে ন্যায় বিচার পাওয়ার আশায় শুক্রবার রাতে থানায় ধর্ষক দু-জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছি। আমি এ ঘটনার দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তি চাই।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি(তদন্ত) স্বপন চন্দ্র সরকার জানান, এ ব্যাপারে শুক্রবার রাতে ভিকটিমের বাবা ইয়াসিন মিয়া বাদী হয়ে দু-জনকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ৯(৩) ধারায় থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-০২ তারিখ-০২/০৮/২০১৯ ইং। ৫ম শ্রেনির শিক্ষার্থী ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য শনিবার নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের জন্য জোর চেষ্টা চলছে।