কেন্দুয়ায় জরাজীর্ণ স্কুল ভবন উন্নয়নে সৎ কর্মঠ প্রকৌশলীর জরুরী পদক্ষেপ

কেন্দুয়ায় জরাজীর্ণ স্কুল ভবন উন্নয়নে সৎ কর্মঠ প্রকৌশলীর জরুরী পদক্ষেপ

মহসীন কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি ঃ জীবনের ঝুকি নিয়ে জরাজীর্ণ ভবনে পাঠদান কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন উত্তর কেন্দুয়া ক্লাস্টার মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। তারা সবসময় চিন্তায় থাকেন কখন ছাদ থেকে পলেস্তার কষে পড়েযায়। জরাজীর্ণ ভবনের জীবনের ঝুকি নিয়ে পাঠদান শিরোনামে উত্তরাধিকার ৭১ নিউজ সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে তিনদিন আগে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। প্রকাশিত এই সংবাদটি দৃষ্টিগোচর হয় উপজেলা প্রকৌশলীর। স্কুল কর্তৃপক্ষ জরাজীর্ণ ভবনের বিষয়টি নেত্রকোনা-৩ আসনের এম.পি অসীম কুমার উকিল, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ নূরুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল-ইমরান রুহুল ইসলাম ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ জিয়াউল হককে অবগত করেন। উপজেলা প্রকৌশলী আল-আমিন সরকার মঙ্গলবার উপসহকারী প্রকৌশলী আব্দুল আজিজকে সঙ্গে নিয়ে ওই বিদ্যালয়ে যান। সেখানে তিনি বলেন, কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীরা যাতে নিরাপদে পাঠগ্রহন করতে পারে সেজন্য আমরা দ্রæত পদক্ষেপ গ্রহণ করব। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি নূরুন্নবী ভ‚ঞা বকুল ও প্রধান শিক্ষক শামসুন্নাহার মিল্কী জানান, সৎ ও কর্মঠ উপজেলা প্রকৌশলী আল-আমিন সরকার ছাত্র-ছাত্রীদের নিরাপত্তার সাথে পাঠগ্রহণের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে জরাজীর্ণ ভবন বাদ দিয়ে নতুন ভবন নির্মানের জন্য মাটি পরীক্ষা ও জরিপের কাজ বুধবারই শুরু করে দেন। ৬ জন লোককে তিনি লাগিয়ে দিয়েছেন এই কাজে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী আল-আমিন সরকার বলেন, হেড কোয়ার্টারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করেই নতুন ভবন নির্মানের জন্য দ্রæত সময়ে এ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। উপজেলা প্রকৌশলী এ পদক্ষেপ গ্রহণ করায় বাদে আঠারোবাড়ি ও আশেপাশের গ্রামের শত শত ছাত্র অভিভাবকগণ উপজেলা প্রকৌশলী আল-আমিন সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।