কেন্দুয়া থেকে ময়মনসিংহে দুটি বাস চলাচল শুরু

কেন্দুয়া থেকে ময়মনসিংহে দুটি বাস চলাচল শুরু

মহসীন কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি ঃ লাখো মানুষের দাবীর প্রেক্ষিতে সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি সংগঠন “হৃদয়ে কেন্দুয়া গ্রুপের” বাস চালুর দাবীতে মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক এম.পি অসীম কুমার উকিল কথা দিয়েছিলেন ঈদের পর কেন্দুয়া থেকে ময়মনসিংহে বাস চালু হবে। কথা দিয়ে কথা রাখলেন তিনি। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে চালু হল রিজবী পরিবহন ও এম.কে সুপার নামের দুটি বাস। একটি সকাল সাড়ে সাতটায় এবং অপরটি সকাল সাড়ে আটটায় কেন্দুয়া পুরাতন বাসষ্ট্যান্ড থেকে ছেড়ে ময়মনসিংহের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে। বাস চালুর শুভ উদ্বোধন করে কেন্দুয়া পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ কামরুল হাসান ভূঞা ও কেন্দুয়া মোটরযান শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজউর রহমান বিপুল। দীর্ঘদিন ধরে সি.এন.জি চালিত অটো রিক্সার মাধ্যমে অদক্ষ চালকরা যাত্রীদের নিয়ে কেন্দুয়া থেকে ময়মনসিংহে যাত্রী পরিবহন করে আসছিল। এর মধ্যে মাসে ৫/৭ টি দূর্ঘটনা ঘটে স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রী সহ সাধারন যাত্রীরা হতাহত হয়ে আসছিল। ব্যাপরোয়া চালকদের কারণে দূর্ঘটনার মাত্রা যখন অধিক হারে বাড়ছিল ঠিক সেই সময়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের “হৃদয়ে কেন্দুয়া” নামের একটি সংগঠন সর্বস্তরের লাখো মানুষের দাবী আদায়ের জন্যে রমজানের শুরুতে কেন্দুয়া শহীদমিনার এলাকায় একটি মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে। হৃদয়ে কেন্দুয়া গ্রুপের পরিচালক ইয়াসির আরাফাত জানান, এই মানববন্ধন থেকে বাস চালু না হওয়া পর্যন্ত পরবর্তী আন্দোলন কর্মসূচির ডাক দেয়ার কথা ছিল, কিন্তু এই কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক নেত্রকোনা-৩ আসনের এম.পি অসীম কুমার উকিল আমাদের আন্দোলন থামিয়ে দিয়ে ঘোষনা দিলেন ঈদুল ফিতরের পর কেন্দুয়া থেকে ময়মনসিংহে বাস চলবে, এ ব্যবস্থা তিনি করবেন। তিনি আরো বললেন, যদি বাস চালু না করতে পারেন, সেক্ষেত্রে বাস চালুর দাবিতে আমাদের সংগ্রামে তিনি নিজেও অংশ গ্রহণ করবেন। কেন্দুয়া পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ কামরুল হাসান ভূঞা গতকাল বৃহস্পতিবার বাস চালুর উদ্বোধনকালে বলেন, লাখো মানুষের দাবীকে সম্মান জানিয়ে এম.পি অসীম কুমার উকিল কথা দিয়ে তিনি তার কথা রাখলেন। আমারা যদি ঠিক থাকি তাহলে এই সড়কে আরো বাস চলাচল করবে যাত্রী সাধারনের সুবিধার জন্য।