কেন্দুয়ায় পাওনা টাকা নিয়ে শালা-দুলাভাই গ্রুপের সংঘর্ষ : আহত ২৫

 কেন্দুয়ায় পাওনা টাকা নিয়ে শালা-দুলাভাই গ্রুপের সংঘর্ষ : আহত ২৫

এ কে এম আব্দুল্লাহ, নেত্রকোনা : পাওনা টাকা আদায়কে কেন্দ্র করে শালা ও দুলা ভাই গ্রæপের সংঘর্ষে নারীসহ উভয় গ্রæপের অন্তত ২৫ জন আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার বেলা ২টার দিকে নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার চিরাং ইউনিয়নের চংনোয়াগাঁও গ্রামে।
     এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, চংনোয়াগাঁও গ্রামের ভগ্নিপতি আব্দুস সাত্তারের সাথে পাওনা টাকা নিয়ে একই গ্রামের শ্যালক ইমন মিয়ার বেশ কিছুদিন ধরে বিরোধ দেখা দেয়। বিষয়টি নিস্পত্তির জন্য রবিবার বেলা ২টার দিকে গ্রাম্য মাতব্বরসহ দুই পক্ষের লোকজন সলিস বৈঠকে বসে। বৈঠকে এক পর্যায়ে শালা-দুলাভাইয়ের মধ্যে তর্ক বির্তক ও কথা কাটা কাটির ঘটনায় দুই পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষনে সংঘর্ষে নারীসহ উভয পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হয়। গুরুতর আহত আজিজুল, আব্দুর রাজ্জাক, আব্দুল হাই, পাঞ্জু মিয়া, আফাই মিয়া, জানু মিয়া ও আরশ মিয়াকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে, বাবুল মিয়া, মোখলেছ মিয়া, আনিসুর রহমান, মজিদা আক্তারকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া বাকীরা কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পার্শ্ববর্তী কিশোরগঞ্জের তারাইল উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে।  
   এ ব্যাপারে কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইমারত হোসেন গাজী’র সাথে যোগাযোগ করলে তিনি দুই পক্ষের সংঘর্ষের কথা স্বীকার করে বলেন, পাওনা টাকা নিয়ে দুলা ভাই ও শ্যালক গ্রæপের মধ্যে সংঘর্ষে ২০/২৫ জন আহত হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় চংনোয়াগাও গ্রামের মৃত শরিয়ত আলীর ছেলে ছলিম মিয়া ও মৃত লালু মিয়ার ছেলে হেলিম মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।