মোস্তাফিজদের বড় হারের স্বাদ দিলো ছিটকে পড়া হায়দরাবাদ

মোস্তাফিজদের বড় হারের স্বাদ দিলো ছিটকে পড়া হায়দরাবাদ

বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে। আইপিএলের প্লে অফের স্বপ্ন শেষ হয়ে যাওয়া সানরাইজার্স হায়দরাবাদই রীতিমত উড়িয়ে দিলো রাজস্থান রয়্যালসকে। দুবাইয়ে মোস্তাফিজদের ৭ উইকেট আর ৯ বল হাতে রেখে হেসেখেলে হারিয়েছে কেন উইলিয়ামসনের দল।১৬৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে উড়ন্ত সূচনা করে হায়দরাবাদ। প্রথম ৩ ওভারেই ২৬ রান তুলে ফেলে তারা। চতুর্থ ওভারে মোস্তাফিজুর রহমানকে আক্রমণে নিয়ে আসেন রাজস্থান অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসন। তবে রানের গতি আটকাতে পারেননি ফিজ।প্রথম দুই বলে ডট দিয়ে শুরু করা কাটার মাস্টার তৃতীয় বলে হজম করেন বাউন্ডারি। পরের বলটি বাই চার হয়ে যায় স্যামসনের ভুলে, দুই পায়ের নিচ দিয়ে। পঞ্চম বলে আরও এক বাউন্ডারি। সবমিলিয়ে ওভারে ৯ রান খরচ করেন ফিজ।৫ ওভারেই ৫৭ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙে ঋদ্ধিমান সাহার আউটে (১১ বলে ১৭)। তবে জেসন রয় আর কেন উইলিয়ামসন সহজ জয়ের রাস্তা গড়ে দেন হায়দরাবাদকে। রয় ৪২ বলে রয় করেন ৬০ রান।মোস্তাফিজকে টানা দুই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জয় নিশ্চিত করা উইলিয়ামসন ৪১ বলে খেলেন হার না মানা ৫১ রানের ইনিংস। ১৬ বলে ২১ রানে অপরাজিত থাকেন অভিষেক শর্মা।৩.৩ ওভারে ২৬ রান খরচ করে একটি উইকেট নেন মোস্তাফিজ। প্রিয়াম গার্গকে গোল্ডেন ডাকে ফেরান নিজেই ক্যাচ নিয়ে।এর আগে সঞ্জু স্যামসনের অধিনায়কোচিত ইনিংসে ভর করে ৫ উইকেটে ১৬৪ রানের চ্যালেঞ্জিং পুঁজি দাঁড় করায় রাজস্থান রয়্যালস।দুবাইয়ে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং বেছে নেন স্যামসন। শুরুতেই ধাক্কা। এভিন লুইস দলীয় ১১ রানের মাথায় ৬ করে সাজঘরে ফেরত যান। তবে আরেক ওপেনার জস্বশী জ্যাসওয়েল ২৩ বলে করেন ৩৬ রান।
লিয়াম লিভিংস্টোনকে (৪) হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়েছিল রাজস্থান। ৭৭ রানে হারায় ৩ উইকেট। তবে স্যামসন বলতে গেলে একাই দলকে শক্ত ভিত গড়ে দিয়েছেন।তৃতীয় উইকেটে মহীপাল লমররকে নিয়ে ৮৪ রানের জুটি গড়েন স্যামসন। দারুণ ব্যাটিং করে ইনিংসের একদম শেষ ওভারে আউট হয়েছেন রাজস্থান দলপতি। ৫৭ বলে ৭ বাউন্ডারি আর ৩ ছক্কায় তার উইলো থেকে আসে ৮২ রানের ঝকঝকে ইনিংস।রাজস্থানের পুঁজিটা আরও বড় হতে পারতো। কিন্তু ভুবনেশ্বর কুমার ইনিংসের শেষ ওভারে স্যামসনকে তুলে নেওয়ার পর শূন্যতে আউট করেন রিয়ান পরাগকেও। ওই ওভারে মাত্র ৪ রান তুলতে পারে রাজস্থান। মহীপাল লমরর ২৮ বলে ২৯ রানে অপরাজিত থাকেন।