কেন্দুয়ায় উপবৃত্তির টাকা নিয়ে বিড়ম্বনা  বাদ পড়েছে ৪৬৭ ছাত্র-ছাত্রী

কেন্দুয়ায় উপবৃত্তির টাকা নিয়ে বিড়ম্বনা  বাদ পড়েছে ৪৬৭ ছাত্র-ছাত্রী

 

সমরেন্দ্র বিশ্বশর্মা, কেন্দুয়া (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি

    নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলায় উপবৃত্তির টাকা নিয়ে বিড়ম্বনার শিকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা। ফলে ৪৬৭ জন ছাত্র-ছাত্রী উপবৃত্তির টাকা পায়নি।
     উপজেলার ৬০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৭হাজার ১৩ জন ছাত্র-ছাত্রীর মধ্যে ৩ হাজার ৯ শ ৯৬ জন ছাত্র-ছাত্রী উপবৃত্তির জন্য আবেদন করেছিল। কিন্তু ৪৬৭ জন ছাত্র-ছাত্রী নানা কারণে উপবৃত্তি থেকে বঞ্চিত হয়েছে। 
    উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায় ৬০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৩৬টি মাধ্যমিক স্কুল, ১৭টি মাদ্রাসা এবং ৪ টি কলেজ। স্কুল ও মাদ্রাসা ষষ্ঠ শ্রেনীতে ৫ হাজার ৩১৩ জন এবং কেন্দুয়া সরকারি কলেজ সহ ৪টি কলেজে একাদশ শ্রেনীতে ১ হাজার ৭শ জন ছাত্র-ছাত্রী অধ্যয়ন করছে। স্কুলের ষষ্ঠ ও কলেজের একাদশ শ্রেনী মিলে মোট ৭ হাজার ১৩ জন ছাত্র-ছাত্রীর মধ্যে ৩ হাজার ৯৯৬ জন ছাত্র-ছাত্রী উপবৃত্তি পেতে আবেদন করেছিল। কিন্তু বাদ পরেছে ৪৬৭ জন। এছাড়া মোবাইল ব্যাংকিং সহ নানা তথ্য জটিলতার কারণে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা উপবৃত্তির টাকা থেকে বঞ্চিত হয়েছে বলে অভিযোগ ওঠেছে। 
    উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, উপবৃত্তির আবেদনের সময় ১৬টি নির্ধারিত বিষয়ে যোগ্য হলে আবেদন করতে বলা হয়েছিল। ৪৬৭ জন যারা বাদ পরেছেন তারা হয়তোবা দারিদ্রতার মাপকাটিতে বিবেচিত হয়নি। সেজন্যেই তারা বাদ পরে থাকতে পারেন। তাছাড়া মোবাইল ব্যাংকিং ও তথ্যাদি জটিলতার কারণে যারা পায়নি সেগুলিও পুনরায় আবেদনের সুযোগ ছিল।