প্রেমের ফাঁদে ফেলে  ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে একাধিক বার ধর্ষণের অভিযোগ

প্রেমের ফাঁদে ফেলে  ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে একাধিক বার ধর্ষণের অভিযোগ

মদন প্রতিনিধি: নেত্রকোনার  মদনে প্রেমের ফাঁদে ফেলে ধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে ওই ভিডিও ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে একাধিক বার ধর্ষণ করায় ভিকটিমের মা শুক্রবার ধর্ষক জাহাঙ্গীরের (২২) বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। জাহাঙ্গীর উপজেলার কাইটাইল ইউনিয়নের কেশজানি গ্রামের মৃত  সিদ্দিক মিয়ার ছেলে ।  ওসি তদন্ত  অভিযোগের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

ভিকটিমের মা জানান, আমার মেয়েকে ওই ছেলেটি স্কুলে পড়া অবস্থায় বিভিন্ন সময় খারাপ আচরণ  করত। পরে আমি আমার মেয়েকে ২৪ জুন ২০১৯ সালে  বিয়ে দিয়ে দেই। কিন্তু ছেলেটি আমার মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার পরেও যোগাযোগ রেখেছে। পরেও জানতে পারি ওই ছেলেটি আমার মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে তাকে বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করেছে। ধর্ষণের ভিডিও মোবাইলে ছেড়ে দিবে বলে অবশেষে আমার মেয়ে তার স্বামীকে তালাক দিতে বাধ্য হয়।  গত ৩ জুলাই ২০২০ ইং তারিখে আমার মেয়েকে বিয়ে করবে বলে আবারো ধর্ষণ করে। এ নিয়ে গ্রামের বাড়িতে বিভিন্ন সময় গ্রাম বৈঠক বসেছে। কোন সুরাহা হয়নি। তারা খুবই প্রভাবশালী। তাই কি আর করব বাধ্য হয়ে ধর্ষণের অভিযোগটি দায়ের করেছি।  আমার মেয়ের প্রতি যে অন্যায় করা হয়েছে আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই। 

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত   জাহাঙ্গীরের বড় বোন শিল্পী আক্তার জানান, সত্যতা যাচাই করে মেডিকেল রিপোর্ট আসলে  যা শাস্তি হয় তাই   আমরা  মেনে নিব।

ওসি তদন্ত উজ্জ্বল কান্তি সরকার বলেন, এ ব্যাপারে ভিকটিমের মা একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। দ্রুত তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।