কেন্দুয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নারীসহ আহত ৬

কেন্দুয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নারীসহ আহত ৬

কেন্দুয়া প্রতিনিধি: তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নেত্রকোনার কেন্দুয়া পৌর এলাকার নল্লা মহল্লার দুই গ্রæপের লোকদের মধ্যে এক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার সন্ধ্যার পর এ সংঘর্ষের ঘটনায় দুই নারীসহ উভয়পক্ষের অন্তত ৬ জন আহত হয়েছে। আহত আব্দুর রহমান (৭০), সায়রা খাতুন (৬০), এখলাস মিয়া (৪০), হীরা মিয়া (২৮), ইতি আক্তার (২০) এবং সাগর মিয়া (১৮) কে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার সকালে অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করার এক পর্যায়ে নল্লা গ্রামের কাঞ্চন মিয়ার ছেলে পিপুল মিয়া প্রতিবেশি আব্দুর রহমানের স্ত্রী সায়রা খাতুন এবং তার ছেলে হেলাল মিয়াকে মারপিট করে। এরই জের ধরে ওইদিন সন্ধ্যার পর প্রতিপক্ষের লোকদের বসতবাড়িতে ফের হামলা ও ভাংচুর করে পিপুল মিয়া ও তার লোকজন। এ সময় হামলার প্রতিবাদ করতে গিয়ে প্রতিপক্ষের এখলাস মিয়াও আহত হন।

পিপুল মিয়ার ছোট ভাই কাজল মিয়ার জানান, প্রতিপক্ষের লোকজন আমার ভাই হীরা, সাগর ও বোন ইতি আক্তারকে মারপিট করেছে।

এদিকে এখলাস মিয়ার স্ত্রী ফজিলা আক্তার জানান, আমরা নিরীহ মানুষ। ওরা আমাদেরকে সব সময় অত্যাচার-নির্যাতন করে। ঘটনার দিন আমার শিশু বাচ্চার গোসলের পানি ফেলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমাদের পিপুল মিয়া ও তার লোকজন আমাদেরকে মারপিট করে এবং বসতবাড়িতে হামলা-ভাংচুর চালিয়ে উল্টো আমাদের লোকদের ওপর মিথ্যা অভিযোগ দিচ্ছে।

শনিবার (১০ জুলাই) দুপুরে কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাজী শাহ নেওয়াজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় কয়েকজন আহত হয়েছেন। তবে এখনো কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।