আমাদের জনগোষ্ঠিকে পুষ্টি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে, বললেন নেত্রকোণা সিভিল সার্জন ডা: মো: সেলিম মিঞা

আমাদের জনগোষ্ঠিকে পুষ্টি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে, বললেন নেত্রকোণা সিভিল সার্জন ডা: মো: সেলিম মিঞা

বিশেষ প্রতিবেদক: কোভিড-১৯ মহামারির সময়ে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থবিধি মেনে ক্যাপসুল খাওয়ানোর জন্য আহবান জানিয়েছেন নেত্রকোণা সিভিল সার্জন ডা: মো: সেলিম মিঞা। তিনি আরও বলেন, আমাদের জনগোষ্ঠিকে পুষ্টি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। স্বাস্থ ও পুষ্টির জ্ঞান সম্পর্কে ধারণা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছতে হবে। কেনান পুষ্টিহীনতার সমস্যা না থাকেল শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা পর্যাপ্ত থাকে। আপনারা জানেন, বিশ্বের অন্যকোন দেশে এভাবে ক্যাম্পেইন করে ভিটামি বা টিকা খাওয়ানো হয়না, কারণ তারা পুষ্টি সচেতন। তিনি আরও বলেন, সাংবাদিকরা যদি গুরুত্বের সাথে এই তথ্যসমূহ প্রচার করে করে তবে এই কার্যক্রমে শতভাগ সফল হওয়া সম্ভব। 

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় ইপিআই ভবনে নেত্রকোণা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের উদ্যোগে জাতীয় ভিটামিন "এ" প্লাস ক্যাম্পেইন ৫-১৯জুন ২০২১ উদ্যাপন উপলক্ষ্যে জেলা পর্যায়ের সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন ও কর্মশালায় সভাপিতর বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ইপিআই সুপারেন্টেন্ডেন্ট মো: মজিবুর রহমানের সঞ্চালনায় এবিষয়ের উপর কথা বলেন এসএমও ডা: নূসরাত আজিম। বক্তব্য রাখেন এমওসিএম ডা: উত্তম কুমার পাল, নেত্রকোণা জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এম. মুখলেছুর রহমান খান, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা: অভিজিৎ লোহ।

.তথ্যানুযায়ী প্রকাশ, জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইেনে ৫জুন থেকে ২১ জুন পর্যন্ত ১৯ জুন পর্যন্ত জেলায় ৬ থেকে ১১ মাসের ৩৯হাজার ৩শত ২৯ জন (১লক্ষ আইইউ) একটি নীল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল ও ১২ থেকে ৫৯ মাসের ৩ লক্ষ ৩৯ হাজার ৬শত ১২জন শিশুকে (২লক্ষ আইইউ)একটি লাল রঙের ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।