কেন্দুয়ায় সাঁইডুলি নদী থেকে এক নারীর লাশ উদ্ধার করল পুলিশ

কেন্দুয়ায় সাঁইডুলি নদী থেকে এক নারীর লাশ উদ্ধার করল পুলিশ

মহসীন, কেন্দুয়া (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি :   নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় সাঁইডুলি নদীতে ঝাঁপ দিয়ে সুবর্ণা আক্তার বর্ণা (২০) নামে এক নারী আত্মহত্যা করেছে। রোববার দুপুরে কেন্দুয়া থানা পুলিশ নদী থেকে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। তবে আত্মহত্যার কারণ কী তা এখনও সন্ধান করতে পারেনি পুলিশ। ওই নারীর মৃত্যু নিয়ে নানামুখি আলোচনা সমালোচনা চলছে। উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের সরিশাকোটা গ্রামের ফয়জুদ্দিনের কণ্যা সুবর্ণা আক্তার বর্ণার ১৭ দিন আগে বিয়ে হয় বারহাট্টা উপজেলার ডেমুরাই গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে আবু সাঈদ মামুনের সঙ্গে। ইসলামিক বিধান মতে রেজিষ্ট্রী কাবিনমূলে তার বিয়ে হয়। তিনদিন আগে এইচ.এস.সি পরীক্ষা দেবে বলে সে স্বামীর বাড়ি থেকে বাবার বাড়িতে চলে আসে। শনিবার রাতে রাত অনুমান টার দিকে সাইঁডুলি নদীতে ঝাঁপ দেয় বলে ধারনা করা হচ্ছে। পুলিশ জানায়, সকালে পরিবারের সদস্যরা নদীর তীরে তার জুতা দেখে তাকে খোজা খুজি শুরু করে। পরে জাল ফেলে নদী থেকে তার লাশ উদ্ধার করে। কেন্দুয়া থানা পুলিশের এস.আই নোমান সাদেকীন বলেন, সুবর্ণা আক্তার বর্ণা নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে পরিবারের দাবী সত্য বলেই মনে হয়। তবে কি কারণে আত্মহত্যা করেছে তার কারণ এখনও নির্ণয় করতে পারিনি। ঘটনায় কেন্দুয়া থানায় একটি জিডি মূলে ওই নারীর লাশের সুরত হাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতে এবং অধিকতর তদন্তে জানাযাবে কি কারনে সে আত্মহত্যা করেছে।