পৌরসভা নির্বাচন অবশেষে চাচা-ভাতিজার নির্বাচনী লড়াই

পৌরসভা নির্বাচন অবশেষে চাচা-ভাতিজার নির্বাচনী লড়াই

 নেত্রকোনা প্রতিনিধি ঃ সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে নেত্রকোনা পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেলেন বর্তমান পৌর মেয়র আলহাজ¦ মো. নজরুল ইসলাম খান। বিএনপি থেকে মনোনয়ন পেলেন আবদুল্লাহ আল মামুন খান রনি। রনি সম্পর্কে নজরুল ইসলাম খানের চাচা। জেলা শহরের চকপাড়া এলাকায় ঐতিহ্যবাহী খান পরিবারের সদস্য তারা। 
 নেত্রকোনা পৌরসভায় এবারের নির্বাচনে জমবে চাচা-ভাতিজার লড়াইয়ে। আসন্ন পৌরসভার নির্বাচনে গত ১২ জানুয়ারী রাতে ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপি’র মনোনয়ন পান আবদুল্লাহ আল মামুন খান রনি এবং ১৩ জানুয়ারী সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ কর্তৃক নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পান আলহাজ্ব মো. নজরুল ইসলাম খান। 
 নেত্রকোনা পৌরসভার বর্তমান মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক-১ আলহাজ¦ মো. নজরুল ইসলাম খান জেলা শহরের চকপাড়ার ঐতিহ্যবাহী খান পরিবারের সন্তান। তাঁর বাবা মরহুম আব্বাছ আলী খান মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, সাবেক এমএনএ এবং দুইবার নেত্রকোনা পৌরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন। বিগত নির্বাচনে জয়লাভের পর গত ৫ বছরে পৌর এলাকার ৯টি ওয়ার্ডে পাঁকা রাস্তা, জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রায় সাড়ে ৪ কিলোমিটার ড্রেন নির্মাণ, শহরের মোক্তারপাড়া, নাগড়া, থানার মোড়, সাতপাই, মালনীরোড থেকে ইসলামপুর পর্যন্ত ফুটপাত, মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্বাছ আলী খান নামে অত্যাধুনিক মিলনায়তন নির্মাণ করেছেন।
   মো. নজরুল ইসলাম খান বলেন, নেত্রকোনা পৌরসভার জনগণের বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পালন করেছি। আবারও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ায় অসমাপ্ত কাজ সমাপ্তসহ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনা এমপি’র আগামী প্রজন্মের রূপকল্প ও ডেল্টাপ্ল্যান বাস্তবায়ন করবো।  
  অন্যদিকে জেলা শহরের ঐতিহ্যবাাহী খান পরিবারের সন্তান জাতীয়তাবাদী যুবদল জেলা শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি আবদুল্লাহ আল মামুন খান রনি। রনির পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ উদ্দিন খান জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ইউনিটের প্রতিষ্ঠাতা কমান্ডার, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক এমপি। পারিবারিক ঐতিহ্য এবং বাবার সুনামকে অক্ষুন্ন রাখতে জেলা যুবদল নেতা রনি প্রতিশ্রæতি ব্যক্ত করেন। তিনি জানান- বিএনপি রাজনীতিতে বাবার ত্যাগ, পরিশ্রম, অবদান ধরে রাখতে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানে স্বপ্নের জাতীয়তাবাদী বাংলাদেশ গড়তে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া’র এবং তারুণ্যের অহংকার ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের রাজনীতি শক্তিশালী করতে, সেই সঙ্গে প্রথম শ্রেণির সম্মানিত পৌর নাগরিকগণের ভোটের রায়ে নির্বাচিত মেয়র হয়ে পৌরবাসীর সেবায় নিজেকে সর্বধায় নিয়োজিত রাখবেন।