নেত্রকোনার মদনে জমি দখল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ আহত-২০ ! চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১ জনের মৃত্যু

নেত্রকোনার মদনে জমি দখল নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ আহত-২০ ! চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১ জনের মৃত্যু

এ কে এম আব্দুল্লাহ্, নেত্রকোনা :  জমি দখলকে কেন্দ্র করে নেত্রকোনার মদনে দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় আহত কাঁলা চান (৬০) নামের এক ব্যক্তি চিকিৎসাধীন অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছেন। নিহত কাঁলা চান মদন সদর উপজেলার দক্ষিণপাড়া গ্রামের বাসিন্দা।
    স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মদন উপজেলা সদরের দক্ষিণ পাড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইসলাম গ্রæপের সাথে একই গ্রামের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রইছ উদ্দিন গ্রæপের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। বীর মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইসলামের পক্ষের মানিক মেম্বার চারদিন আগে আইন বিলের ১ একর ৪৫ শতাংশ জমিতে বোরো ধান রোপণ করে। এরই জের ধরে মঙ্গলবার দুপুরে রইছ চেয়ারম্যান পক্ষের শতাধিক লোক দেশীয় অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে রোপণকৃত জমি নষ্ট করে তাদের দখলে নেয়ার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে মানিক মেম্বার তাদেরকে বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করলে রইছ চেয়ারম্যানের লোকজন তাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এর কিছুক্ষণ পর মুক্তিযোদ্ধা তাজুল গ্রæপের লোকজনও দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছলে পুলিশের সামনেই দু গ্রæপের মধ্যে  ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়।
 সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়। গুরুতর আহত কাঁলা চান, সুজন, নূর মিয়া, আবুল কালাম, হেলাল, জিকুল মিয়া, আশিক, আক্কাসকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বাকী আহতদের মদন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। গুরুতর আহত কাঁলা চান ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মারা যায়। 
    এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (খালিয়াজুরী সার্কেল) মোঃ জামাল উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে গুরুতর আহত কাঁলা চান মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় ময়মনসিংহ মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।