ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে কেন্দুয়ায় পাটেশ^রী নদীর তিনটি অবৈধ বাধ উচ্ছেদ

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে কেন্দুয়ায় পাটেশ^রী নদীর তিনটি অবৈধ বাধ উচ্ছেদ

সমরেন্দ্র বিশ^শর্মা কেন্দুয়া  প্রতিনিধি :পানির গতি প্রবাহ রোধ করে নদীতে মাছ ধরতে কেন্দুয়ার পাটেশ^রী নদীতে বাঁশ দিয়ে দেয়া হয় ৩টি অবৈধ বাঁধ। এসব বাঁধ অপসারণের জন্য মৎস্য বিভাগ থেকে বার বার নিষেধ করার পরও একটি প্রভাবশারী মহলের ছত্রছায়ায় মৎসজীবিরা পাটেশ^রী নদীতে অবাধে পোনা মাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ ধরে আসছিলেন। 
উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের বেজগাঁও নামক স্থানে পাটেশ^রী নদীর এসব অবৈধ বাঁধ অপসারণের জন্য পরিচালনা করা হয় ভ্রম্যমান আদালত। ওই আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ খবিরুল আহসান।  মঙ্গলবার বিকেলে সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ সাজ্জাদ হোসেন জানান পাটেশ^রী নদীর এসব অবৈধ বাঁধ অপসারণ করতে বার বার নিষেধ করার পরও মৎস্যজীবিরা  একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় নদীর গতিপ্রবাহ রোধ করে অবৈধ তিনটি বাঁশের বাঁধ দিয়ে মাছ ধরে আসছিলেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ খবিরুল আহসানের নেতৃত্বে এসব অবৈধ বাঁধ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে উচ্ছেদ করা হয়। এসময় দুজনের কাছ থেকে ২০০০ টাকা জরিমানাও আদায় করেন ভ্রম্যমান আদালত। তিনি আরও জানান আদালত আটককৃত নিষিদ্ধ ঘোষিত কারেন্ট জাল ও বাঁধের সরঞ্জামাদি ঘটনাস্থলেই আগুনে পুড়িয়ে দেয়। তাছাড়া কিছুমাছ উদ্ধার হলেও সেসব মাছ স্থানীয় এতিম খানায় বিতরণ করে দেয়া হয়েছে।