কলমাকান্দায় বিজিবি’র চাকুরীচ্যুত সিপাহী ভারতীয় মালামাল সহ গ্রেফতার ৪ জন

কলমাকান্দায় বিজিবি’র চাকুরীচ্যুত সিপাহী ভারতীয় মালামাল সহ গ্রেফতার ৪ জন

কলমাকান্দা  প্রতিনিধি :    নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলায় ভারতীয় দুই হাজার ৫৮৯ পিস ওড়না, ২৬ পিস শাড়ী ও ২টি টায়ার সহ চার চোরাকারবারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নগদ ৩৬ হাজার টাকা এবং উদ্ধারকৃত ভারতীয় পণ্যসহ এ কাজে ব্যবহৃত পিকআপটিকে জব্দ দেখিয়ে সোমবার বিকেলে পাঁচজনকে আসামি করে ১৯৭৪ সালের বিশেষ আইনে পুলিশ বাদী হয়ে কলমাকান্দা থানায় মামলা করেছে। একজন পালিয়ে গেলেও চারজনকে গ্রেফতার করতে পেরেছে পুলিশ।
সোমবার বিকেলেই গ্রেফতারকৃত চারজনকে নেত্রকোনা আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং নগদ অর্থ ও পিকআপসহ জব্দকৃত মালের আনুমানিক বাজার মূল্য ২৩ লক্ষ ৬৯০ টাকা হবে বলে জানিয়েছে কলমাকান্দা থানা পুলিশ।
আসামীরা শেরপুর জেলার সদর উপজেলার দুইজন- বলাইরচর গ্রামের মো. বিল­াল হোসেনের ছেলে বিজিবি’র চাকুরীচ্যুত সিপাহী মো. নুর“ল ইসলাম (৩৫) ও নামা শেরীররচর গ্রামের মো. হানিফ উদ্দিনের ছেলে জুয়েল রানা (২৬)। আর নেত্রকোনার কালমাকান্দা উপজেলার তিনজন হলো- রামপুর গ্রামের মো. আবু বক্কর সিদ্দিকের ছেলে মো. কবির হোসেন (২৪), লেংগুড়া গ্রামের মো. হালিম মৃধার ছেলে মো. র“হুল আমিন (২৫) ও ডাইয়ারকান্দা গ্রামের মাসুদ (৩০)। এদের মধ্যে মাসুদ পলাতক রয়েছে। পুলিশ সুত্রে জানা গেছে    গত রবিবার দিনগত রাতে পার্শ্ববর্তী সুনামগঞ্জ জেলার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে নৌকাযোগে কলমাকান্দার উপজেলার ডাইয়ারকান্দা ঘাটে এনে ভারতীয় পণ্য পিকআপে লোড করা হ”েছ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে থানার ওসি ( তদন্ত ) মোঃ সিরাজুল ইসলাম খান ও  এস,আই নজর“ল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ সোমবার ভোর রাতে উপজেলার সদরে রেইট্রিতলা আওয়ামীলীগ অফিসের সড়কের সামনে চেকপোষ্ট বসিয়ে পিকআপটিকে থামায়।
এসময় পুলিশের উপ¯ি’তি টের পেয়ে মাসুদ নামে একজন দৌঁড়ে পালিয়ে গেলেও চারজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে পিকআপে তল­াশী চালিয়ে দুই হাজার ৫৮৯ পিস ওড়না, ২৬ পিস শাড়ী ও ২টি টায়ার দেখতে পায় এবং পরে এসব ভারতীয় পণ্য সহ পিকআপটি জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।
কলমাকান্দার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সিরাজুল ইসলাম খান এ ঘটনার সত্যতা করে সমকালকে জানান , ১৯৭৪ সালের বিশেষ আইনে চোরাচালানের মাধ্যমে আনয়ন ও সহায়তা করার অপরাধে পাঁচজনকে আসামি করে পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেছে। এদের মধ্যে গ্রেফতারকৃত বিজিবি’র চাকুরীচ্যুত সিপাহী মো. নুর“ল ইসলাম সহ চারজনকে  আজ সোমবার সন্ধ্যায় আদালতে পাঠানো হয়েছে এবং জব্দকৃত পণ্যের আনুমানিক বাজার মূল্য ২৩ লক্ষ ৬৯০ টাকা বলে তিনি জানান।