কলমাকান্দায় দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ঃ গুলি ঃ আহত-৬

 কলমাকান্দায় দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ঃ গুলি ঃ আহত-৬

এ কে এম আব্দুল্লাহ, নেত্রকোনা ঃ নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা উপজেলার কৈলাটী বাজারে মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে নির্বাচনী মিছিলকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীর সমর্থক ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ঘটনা ঘটেছে। এ সময়  বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষনের ঘটনা ঘটে। ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে ৬ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে।
   স্থানীয় নেতাকর্মী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে কৈলাটী বাজারে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নেত্রকোনা জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি, সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক তালুকদারের কর্মী সমর্থকরা নৌকার পক্ষে মিছিল বের করে। অপরদিকে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী কলমাকান্দা সদর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ফজলুল হক ফজলুর সমর্থকরা আনারস প্রতিকের পক্ষে মিছিল বের করে। দুটি মিছিল মুখোমুখি হলে নেতাকর্মীদের মাঝে উত্তেজনা দেখা দেয়। এ নিয়ে দুইপক্ষের মাঝে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় কলমাকান্দা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি চন্দন বিশ^াস তার ব্যাক্তিগত নাইন শুটার রাইফেল থেকে বেশ কয়েক রাইন্ড গুলি ছুড়লে নৌকার কর্মী সমর্থকসহ বাজারের লোকজন ভয়ে আতংকে দিক-বিদিক ছুঠোছুটি শুরু করে। এতে কৈলাটী ইউনিয়ন আওয়ামীলেিগর সভাপতি হাবিবুর রহমান সোহরাব, সদস্য বাচ্ছ ুমিয়াসহ উভয় পক্ষের ৭/৮ জন আহত হয়। আহতদেরকে কলমাকান্দা হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।
   এ ব্যাপারে কলমাকান্দা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি চন্দন বিশ^াসের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, আত্মরক্ষার্থে আমি ফাঁকা গুলি বর্ষন করেছি।
 কলমাকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ মাজহারুল করিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, দুই প্রার্থীর মিছিল করাকে কেন্দ্র করে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ৭ রাউন্ড ফাকা গুলি বর্ষনের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।
 পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।