পূর্বধলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন হামলা মামলা ও নির্বাচনী ক্যাম্প ভাংচুরের প্রতিবাদে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাছুদ আলম টিপু’র সংবাদ সম্মেলন

পূর্বধলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন হামলা মামলা ও নির্বাচনী ক্যাম্প ভাংচুরের প্রতিবাদে স্বতন্ত্র প্রার্থী মাছুদ আলম টিপু’র সংবাদ সম্মেলন

পূর্বধলা প্রতিনিধি :  পূর্বধলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের নানা ধরণের হুমকি, ধামকি, নির্বাচনী ক্যাম্পে হামলা ভাংচুর এবং দলীয় নেতাকর্মীদের মারধরের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক মোঃ মাছুদ আলম তালুকদার টিপু। শুক্রবার রাত ৮টায় পূর্বধলা উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
      সংবাদ সম্মেলনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ মাছুদ আলম তালুকদার টিপু বলেন, পূর্বধলা উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের বেশীরভাগ নেতাকর্মীদের চাপে পড়ে আমি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছি। আমার সঙ্গে দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মী রয়েছে। তারা আমার নির্বাচন করছে। আমার জনপ্রিয়তায় ঈষান্বিত হয়ে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম সুজন বহিরাগত কিছু সন্ত্রাসী নিয়ে  বিভিন্ন স্থানে আমার পোস্টার ছিড়ে ফেলার পাশাপাশি নির্বাচনী ক্যাম্পে সশস্ত্র হামলা, ভাংচুর এবং আমার কর্মী সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট করছে। সুজন নির্বাচনী আচরণ বিধি ভঙ্গ করে সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত মাইক ব্যবহার করছে। তার সন্ত্রাসী ক্যাডার বাহিনীর অস্ত্রের আঘাতে উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক হাবিবুর রহমান রুক্কু, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল বারেক মুন্সীসহ অনেক নেতাকর্মী আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।
     এছাড়াও সুজন আমার কর্মী সমর্থকদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য তিনি জেলা রিটার্নিং অফিসার সহ স্থানীয় প্রশাসনের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন। এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এরশাদ হোসেন মালু, জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য এ টি এম ফয়জুর সিরাজ জুয়েল, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন বকুল, সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা, হাসিমা আক্তার বিরহী, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার নিজাম উদ্দিন, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদুজ্জামান আজাদ, যুবলীগ নেতা মাহাবুবুর রহমান বুলবুল, ফেরদৌস আলমসহ দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থরা উপস্থিত ছিলেন।