নেত্রকোনায় কমছে পানি, বাড়ছে দুর্ভোগ

নেত্রকোনায় কমছে পানি, বাড়ছে দুর্ভোগ

 নেত্রকোনা প্রতিনিধি ঃ  নেত্রকোনায় গত কদিন ধরে নদ নদীর পানি কমতে শুরু করেছে। তবে জেলার বিভিন্ন উপজেলায় নিন্মাঞ্চলে পানি জমে থাকায় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় মানবেতর জীবন যাপন করছে। 
  এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে জেলার প্রধান নদী সোমেশ্বরী, উদ্ধাখালী, কংস, মগড়া, ধনুসহ বিভিন্ন নদীর পানি বেড়ে নিন্মাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। দুর্গাপুরে সোমেশ্বরী, নেতাই, বারহাট্টা, জেলা সদরে কংস, মগড়া, কলমাকান্দায় উদ্ধাখালী, গণেশ্বরী, মোহনগঞ্জে ও খালিয়াজুরীতে ধনু নদীর পানি বেড়ে নিন্মাাঞ্চলে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। জেলার দুর্গাপুর, কলমাকান্দা, বারহাট্টা, সদর উপজেলার শতাধিক গ্রামের লক্ষাধিক মানুষ প্রায় ২০দিন ধরে পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে খালিয়াজুরী, কলমাকান্দা, বারহাট্টা, মদন ও দুর্গাপুরে ১৬৫ মেট্রিক টন চাল, ১৮শ প্যাকেট শুকনো খাবার ও সাড়ে চার লাখ বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। যা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই অপ্রতুল। ওই সমস্ত উপজেলায় প্রায় তিন হাজার কাঁচা বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বাড়ির চারপাশে পানি থাকায় মানুষ বাড়ি থেকে বের হতে পারছে না। দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানীয় জলের সংকট।  
 নেত্রকোনা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আক্তারুজ্জামান বলেন, জেলায় নদ নদীর পানি কিছুটা কমেছে। সবগুলো নদীর পানি বিপদসীমার নীচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
 নেত্রকোনার জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম বলেন, কলমাকান্দা, দুর্গাপুরে বেশ কিছু কাাঁচা বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত উপজেলায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চাল, নগদ টাকা ও শুকনো খাবার বরাদ্দ করা হয়েছে।