নেত্রকোনায় সাংবাদিক লিটন ধর গুপ্তের পরলোকগমন

নেত্রকোনায় সাংবাদিক লিটন ধর গুপ্তের পরলোকগমন

নেত্রকোনা প্রতিনিধি ঃ নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাবের সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক, নেত্রকোনা টেলিভিশন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক, রুরাল জার্নালিষ্ট ফাউন্ডেশনের (আরজেএফ) নেত্রকোনা জেলা কমিটির সহসভাপতি, সাংস্কৃতিক কর্মী লিটন ধর গুপ্ত (৫৩) শনিবার সন্ধ্যায় পরলোকগমন করেন। তিনি ভোরের কাগজের নেত্রকোনা জেলা প্রতিনিধি, দেশ টিভি ও বাংলাদেশ বেতারের জেলা প্রতিনিধি হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছিলেন। তিনি স্ত্রী, এক মেয়ে ও এক ছেলে রেখে গেছেন।
 পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বেশ কিছুদিন ধরে লিটন ধর গুপ্ত হৃদরোগে ভোগছিলেন। শনিবার দুপুরে বুকে ব্যাথা অনুভব করলে বাসায় ডাক্তার দেখানো হয়। ডাক্তার তার শরীর পরীক্ষা করে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন। পরে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সন্ধ্যে সাড়ে সাতটায় চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তাঁর মৃত্যুর খবর নেত্রকোনায় পৌছলে পরিবার, সাংস্কৃতিক অঙ্গন ও সাংবাদিক সহকর্মীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত জেলা শহরের সাতপাই এলাকায় প্রয়াত লিটন ধর গুপ্তকে এক নজর দেখার জন্য তাঁর বাসায় সকলেই ভীড় জমান। রোববার নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাব, নেত্রকোনা টেলিভিশন ফোরাম, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, সামাজিকসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। পরে সকাল ১০টার দিকে নেত্রকোনা পৌর শ্মশানে তাঁর শেষ কৃত্য অনুষ্ঠিত হয়। লিটন ধরের অকাল মৃত্যুতে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু এমপি, নেত্রকোনা-৩ আসনের এমপি অসীম কুমার উকিল, নেত্রকোনা-  ৫ আসনের এমপি ওয়ারেসাত হোসেন বেলাল, সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি হাবিবা রহমান খান শেফালী, নেত্রকোনা জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল, সাংবাদিক সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা হায়দার জাহান চৌধুরী, নেত্রকোনা টেলিভিশন ফোরামের সভাপতি মো. খলিলুর রহমান শেখ, আরজেএফ জেলা কমিটির সভাপতি দিলওয়ার খান, সাধারণ সম্পাদক সুজাদুল ইসলাম ফারাস,ইকরা প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আলহাজ্ব অধ্যক্ষ শফিকুজ্জামান শোক প্রকাশ করেন।