মদনে  ছুড়িকাঘাতে আহত  যুবকের মৃত্যু    

মদনে  ছুড়িকাঘাতে আহত  যুবকের মৃত্যু    

মদন  প্রতিনিধি  : নেত্রকোনার মদন হাসপাতালে রোগী দেখতে এসে  প্রতিপক্ষের হামলায় ছুড়িকাঘাতে আহত  যুবক সুমন মিয়া (২৫)  শনিবার ভোর ৪ টাকায় ঢাকা বক্ষব্যাতি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। 
সুমন শুক্রবার দুপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত বৃদ্ধা খালা রুপচান বেগমকে দেখতে মদন হাসপাতালে ওয়ার্ডে এলে বিরোধী পক্ষ সঙ্গবদ্ধ হয়ে এলোপাতাড়িভাবে ছুড়িকাঘাত করে তাকে আহত করে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। তার অবস্থা আশষ্কা জনক থাকায় সেখান থেকে ঢাকা বক্ষব্যাধি হাসপাতালে পাঠালে সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায়  শনিবার ভোর ৪ টায় তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর বিষয়টি ইউপি সদস্য রিয়াজ আহমেদ সোহেল নিশ্চিত করেছেন। নিহত সুমন নেত্রকোনার মদন উপজেলার বালালী গ্রামের মৃত সবুজ মিয়ার ছেলে। 
ওসি রমিজুল হক জানান, হামলায় আহত সুমন চিকিৎসাধীন অবস্থায়  ঢাকা একটি হাসপাতালে মারা গেছেন। শুক্রবার হামলার ঘটনায় সুমনের ভাই পলাশ বাদী হয়ে মদন থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। হামলায় জড়িত থাকায় ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  দায়ের করা ওই মামলাটি হত্যা মামলায় রুপান্তরিত হবে।
উল্লেখ্য উপজেলার বালালী গ্রামে পূর্বশত্রæতার জের ধরে  একই গ্রামের আবদুল গণি বেচুকে দৌলতপুর কালিবাড়ি মোড়ে প্রতিপক্ষের লোকজন মারপিট করে। পরে  আব্দুল গণি বেচু মিয়ার লোকজন ইউপি সদস্য রিয়াজ আহমেদ সোহেলের বৃদ্ধ মার হাত ও আঙ্গুল ভেঙে দেয়। এরই প্রেক্ষিতে সোহেলের খালাতো ভাই খালাকে মদন হাসপাতালে দেখতে এলে  এ ঘটনা ঘটে।