তেলিগাতী সরকারি কলেজর রাস্তার বেহাল দশা । যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ 

তেলিগাতী সরকারি কলেজর রাস্তার বেহাল দশা । যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ 

আটপাড়া প্রতিনিধি মোঃ রাশেদুল হাবিব ভূঁইয়া ইকবাল :  নেত্রকোনা জেলার আটপাড়া উপজেলার তেলিগাতী সরকারি কলেজের প্রধান রাস্তায় বেশ কয়েক বছর ধরে বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে। এর ফলে  শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের কলেজে যাতায়াতে ব্যাপক সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে।

আটপাড়া উপজেলার অন্যতম ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান তেলিগাতী সরকারি কলেজ।  যার শিক্ষার্থী সংখ্যা বর্তমানে প্রায় তিন হাজারের অধিক।  উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত হতে প্রতিনিয়ত অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী ছুটে আসে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে।  কিন্তু বিগত কয়েক বছর যাবৎ কলেজের প্রবেশ পথে বর্ষা মৌসুমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে।  এ জলাবদ্ধতার প্রধান কারণ হচ্ছে অপরিকল্পিতভাবে কলেজে প্রবেশের প্রধান রাস্তার দুপাশে  বহুসংখ্যক দোকানপাট এবং ঘরবাড়ি গড়ে উঠা এবং পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না রেখে যত্রতত্র বালু ভরাট।  

ঘরবাড়ি এবং দোকানপাট গুলো পাশাপাশি গড়ে ওঠার কারণে পানি নিষ্কাশন এর কোন ব্যবস্থা থাকছে না।  যার ফলে অল্প বৃষ্টি হলেই তৈরি হচ্ছে জলাবদ্ধতা।  

সরকার কর্তৃক নির্দেশনা রয়েছে,  কোন অবস্থাতেই প্রাণী পানি প্রবাহ বন্ধ করা যাবে না 

   কিন্তু এই নির্দেশনা উপেক্ষা করে, তেলিগাতী সরকারি কলেজের  প্রধান রাস্তার পাশে ঘরবাড়ি এবং দোকান গড়ে ওঠা এবং পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না রেখে যত্রতত্র বালু ভরাটের ফলে  প্রত্যেক বর্ষা মৌসুমেই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হচ্ছে।  এতে বিঘ্নিত হচ্ছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের কলেজে আসা যাওয়া। এই জলাবদ্ধতার নোংরা পানি থেকেই বর্তমান সময়ে জন্ম নিচ্ছে এডিস মশা ।  তাছাড়া তেলিগাতী সরকারি কলেজের এই রাস্তাটি দিয়ে কলেজের শিক্ষক -শিক্ষার্থী ছাড়াও তেলিগাতী ইউনিয়নের বিজয়পুর, ইকরাটিয়া এবং শ্রীরামপাশা'র বহু সংখ্যক লোক প্রতিদিন যাতায়াত করে।  

 

কলেজ কর্তৃপক্ষ বেশ কয়েক বছর যাবৎ উপজেলার বিভিন্ন কর্মকর্তার নিকট আবেদন করে এই বিষয় নিয়ে। কিন্তু আবেদন করা হলেও অতীতে জলাবদ্ধতা নিরসনে তেমন কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি।  

বর্তমান সময়ে পুনরায় কলেজ কর্তৃপক্ষ (আটপাড়া কেন্দুয়া)র মাননীয় সংসদ সদস্য,  আটপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট আবেদন করে।

 

এই আবেদনের বিষয় নিয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী খায়রুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি জানান,  "আমরা ইতিমধ্যে কলেজের জলাবদ্ধতার বিষয়টি জেনেছি। জলাবদ্ধতা নিরসনে ইতিমধ্যে শ্রমিক কাজ করছে। পরবর্তীতে প্রবেশ পথের দুপাশে ড্রেনের ব্যবস্থা করা হবে। "

উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান খান নন্দন এর সাথে কথা বললে জানান, 

"তেলিগাতী সরকারি কলেজ একটি ঐতিহ্যবাহী  শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।  এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জলাবদ্ধতার খবরটি জেনেছি। জলাবদ্ধতা পূর্ণ স্থানটি আমি পরিষদ চেয়ারম্যানের নির্দেশে পরিদর্শন করি। জলাবদ্ধতা নিরসনে আমাদের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। "