মদনে মারামারি ঘটনার জেরধরে বৃদ্ধার হাত ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষ 

   মদনে মারামারি ঘটনার জেরধরে বৃদ্ধার হাত ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষ 

 মোতাহার আলম চৌধুরী, মদন  প্রতিনিধি : নেত্রকোনার মদনে মারামারির ঘটনার জেরধরে এক বৃদ্ধার হাত ও আঙ্গুল ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। ইউপি সদস্য  বালালী গ্রামের রিয়াজ আহমেদের মা রুপচান (৭৫)   ভাঙ্গা হাত নিয়ে মদন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সোমবার উপজেলার বালালী গ্রামের ইউপি সদস্য রিয়াজ আহমেদ সোহেলের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। 
গত শনিবার সন্ধ্যায় পূর্বশত্রæতার জেরধরে একই গ্রামের আব্দুল গণি বেচুকে দৌলতপুর কালিবাড়ি মোড়ে প্রতিপক্ষের লোকজন মারপিট করলে তার ছেলে ওমর সানি বাদি হয়ে ওই  রাতে ৫৬ জনকে আসামি করে মদন থানায় একটি মামলা দায়ের করে। 
এরই প্রেক্ষিতে সোমবার সকালে ইউপি সদস্য রিয়াজ উদ্দিন  আহমেদ সোহেলের বাড়িতে প্রতিপক্ষের লোকজন হামলা চালিয়ে বসত ঘর ভাংচুর ও বৃদ্ধাকে মারপিটের ঘটনা ঘটায়। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। 
ইউপি সদস্য রিয়াজ আহমেদ সোহেল জানান, বালালী গ্রামের বেচু মিয়ার ভাই জলিলের নেতৃত্বে ১০/১৫ জন সশস্ত্র লোক সোমবার সকালে আমার বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালিয়ে আমার বসত ঘরে ব্যাপক ভাংচুর ও আমার বৃদ্ধ মাকে মেধরক পেটায়।   বর্তমানে আমার মা  মদন হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। এ ব্যাপারে আমার ভাই মদন থানায় মামলা করবে। 
ইউপি চেয়ারম্যান ফখর উদ্দিন আহমেদ জানান, ঘটনার খবর পেয়ে গ্রামে গিয়েছি। তবে আমার ইউপি সদস্যের মাকে মারপিট করায় ঘটনাটি খুবই দু:খ জনক। 
ওসি মোঃ রমিজুল হক জানান,উক্ত ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তবে যেটা শুনেছি মহিলার ধাক্কা ধাক্কিতে বৃদ্ধা পড়ে গিয়ে আহত হয়েছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।