মদনে গ্রামে গ্রামে বাড়ছে করোনার ঝুঁকি

মদনে গ্রামে গ্রামে বাড়ছে করোনার ঝুঁকি

মদন  নেত্রকোনা) প্রতিনিধি : করোনার পরিস্থিতি সামাল দিতে দেশের সব কল-কারখানা গুলো বন্ধ করে দিয়েছে সরকার। ফলে  শহরে যাওয়া কর্মহীন হাওরাঞ্চলের মানুষগুলো এবার শহর ছেড়ে দলবেঁধে ফিরতে শুরু করেছে গ্রামে।  
কেউ আসছে গ্রামের পরিবারের কাছে আবার কেউ কেউ শহরে থাকা সহপরিবারে সড়ক পথ বন্ধ থাকায় বিকল্প পথে। এতে গ্রামে বাড়ছে করোনা ঝুঁকি। গ্রামের সচেতন মহলে মধ্যে চরম অসন্তোষ  বিরাজ করছে। এ দিকে জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম নেত্রকোনাকো লকডাউন ঘোষণা করেছেন।
আইসিইইডিআর এর সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনা শনাক্ত হয়েছে নারায়ণগঞ্জ ,ঢাকা ও গাজীপুর  জেলায়। আর এই জেলাগুলো থেকে মানুষ আসায় এতেই ঘটছে বিপত্তি। শহর ফেরত মানুষেরা  কোন রকম তোয়াক্কা করছেন না সরকারি নির্দেশনা।  হোম কোয়ারেন্টিন না মেনে অবাধে চলাফেরা করছেন তারা। যাচ্ছেন পরিচিতদের বাসায় দিচ্ছেন বন্ধু ও প্রতিবেশীদের সাথে আড্ডা।  
এ দিকে উপজেলা প্রশাসন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজ বুক ফেইজ, বিভিন্ন বাজারে হ্যান্ড মাইকিং করে সর্তক করছেন যারা ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে এসেছেন তারা ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। ইউপি চেয়ারম্যানদের মাধ্যমে স্ব স্ব ইউনিয়নে মাইংকি করে সচেতনতা করার পরেও শহর ফেরত মানুষরা তা মানতে নারাজ।  গত এক সাপ্তাহে  ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ,  চট্টগ্রাম ও সিলেট ও নরসিংদীসহ অন্যান্য জায়াগা থেকে  থেকে এসেছেন আরো আসার পথে রয়েছে। এদের অনেকের খবর এখনও পর্যন্ত উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক জানেন না। যাদের বিষয়ে প্রশাসক খোঁজ খবর পাচ্ছে তাদেরকে শুধু হোম কোয়ারান্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে। কিন্তু তাদের কোন নমুনা সংগ্রহ করা হয়নি। সাধারণ সর্দি ও কাশি ও জ্বর নিয়ে যারা বাড়িতে অবস্থান করছেন তারা ও হাসপাতালে কোন যোগাযোগ করছেন না। স্বাস্থ্য কর্মীদেরকে দেখে তারা  গা ডাকা দেন।