কলমাকান্দায় ফের প্রতিমা ভাংচুর , থানায় মামলা

কলমাকান্দায় ফের প্রতিমা ভাংচুর , থানায় মামলা

কলমাকান্দা , প্রতিনিধি :নেত্রকোণার কলমাকান্দায় ফের কালীমন্দিরের প্রতিমা ভাংচুর, থানায় অজ্ঞাতনামা আসামি করে  মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত প্রতিমা ভাঙচুর  ঘটনায় রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি পুলিশ।
উপজেলার কৈলাটি ইউনিয়নের নাউরীপাড়া গ্রামের সার্বজনীন কালী মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ব্যাপারে ওই গ্রামের মৃত রমনী মোহন রায়ে ছেলে পরিমল রায় বাদী হয়ে কলমাকান্দা থানায় অজ্ঞাতনামা আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
পুলিশ ও স্থানীয়  সূত্রে জানা গেছে,  উপজেলার কৈলাটি ইউনিয়নের নাউরীপাড়া গ্রামে সার্বজনীন কালী মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। রবিবার মধ্যে রাত থেকে  ভোর সাড়ে ৫টার মধ্যে কোনো এক সময়ে অরক্ষিত টিনের চালাঘরের কালী মন্দিরের দরজা ও জানালা ভেঙে দুর্বৃত্তরা ভেতরে প্রবেশ করে ওই ভাঙচুর চালায়। রবিবার সকালে মন্দিরের সংলগ্ন বাসিন্দা সজল রায় ঘুম থেকে উঠে প্রতিদিনের মতো সকালে হাঁটতে বের হন। তখন রাস্তার উপর মাথাবিহীন একটি প্রতিমা পড়ে আছে দেখতে পান। পরে তাৎক্ষণিক কালী মন্দিরে গিয়ে দেখেন ওই মন্দিরে দরজা জানালাসহ ভাঙ্গা  দেখতে পায়। মন্দিরের ভিতরে ঢুকে দেখতে পান আরো একটি প্রতিমা ভাঙচুর করে ফেলে রেখেছে। পরে এলাকাবাসীসহ ইউপি চেয়ারম্যান, প্রশাসনকে খবর দেন।
খবর পেয়ে ইতিমধ্যেই দুর্গাপুর সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার মাহমুদা শারমিন নেলী, উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল খালেক তালুকদার , কলমাকান্দা থানার ওসি (তদন্ত) মো. সিরাজুল ইসলাম খান, সিধলী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক মো. শফিকুল ইসলামসহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে ভাঙচুর হওয়া প্রতিমাগুলোকে থানায় জব্দ করে নিয়ে আসেন পুলিশ প্রশাসন।
কলমাকান্দা থানার ওসি (তদন্ত) মো. সিরাজুল ইসলাম খান বলেন প্রতিমা ও মন্দিরের ভাঙচুরের ঘটনায় থানায় গত রবিবার রাতেই অজ্ঞাতনামা আসামি করে  একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।