কেন্দুয়ায় ভ্রাম্যমান আদালত লবন কারসাজির ঘটনায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইনে ৮ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ৮টি মামলা দায়ের

কেন্দুয়ায় ভ্রাম্যমান আদালত লবন কারসাজির ঘটনায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইনে ৮ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ৮টি মামলা দায়ের

মহসীন কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি ঃ মঙ্গলবার সকালে হঠাৎ করেই লবন কেনার হিড়িক পড়ে যায়। মুখে মুখে প্রচার হতে থাকে পেঁয়াজের মতো লবনের দামও বেড়ে গেছে। ব্যবসায়ীরা লবন নিয়ে বিভিন্ন বাজারে কারসাজি শুরু করেন। তারা চড়া দামে লবন বিক্রি করতে থাকেন। উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে মোবাইল ফোনে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের কাছে লবন কারসাজির খবর আসতে থাকে। দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইউএনও আল-ইমরান রুহুল ইসলাম কেন্দুয়া, রামপুর, বেখৈরহাটি, দূর্গাপুর, রেট্রিতলা বাজারে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে লবন কারসাজির ঘটনায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন আইনে ৮ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ৮টি মামলা দায়ের করা হয়। এসময় তিনি কেন্দুয়া বাণিজ্যালয়ের বাচ্চু মিয়া কে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা সহ কেন্দুয়া, রামপুর ও বেখৈরহাটি বাজারের আরো ৭ ব্যাবসায়ী সহ মোট ৮ ব্যাবসায়ীর কাছ থেকে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। এছাড়া তিনি অনেক ব্যবসায়ীদেরকে লবন ও পেঁয়াজ কারসাজি থেকে দূরে থাকার জন্য সতর্ক করে দেন। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার কাজে সহযোগিতা করেন কেন্দুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান সহ পুলিশের অন্যান্য সদস্যরা। ব্যাবসায়ীরা ৫০, ৬০, ৭০ টাকা কেজি দরে লবন বিক্রি করে আসছিলেন বলে অভিযোগ ওঠেছে।