কেন্দুয়া তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি হামলায় আহত ১০

 কেন্দুয়া তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পাল্টাপাল্টি হামলায় আহত ১০

মহসীন কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি ঃ  তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে কেন্দুয়া পৌরশহরে কুন্ডুলী ও টেঙ্গুরী মহল্লার দুই গ্রæপের লোকদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি হামলায় উভয়পক্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। হামলার ঘটনাটি ঘটে রোববার রাত ৭ টার দিকে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমল্পেক্সের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা. মাহমুদ জানান আহতদের মধ্যে টেঙ্গুরী মহল্লার মিন্টু মিয়ার ছেলে জাহান (২৫), কুন্ডুলী মহল্লার আক্তার উদ্দিনের ছেলে মজিবুর (৩৮), আব্দুস সাত্তারের ছেলে জাকির হোসেন (৩২), জাকিম (২৫), দেলোয়ার (৩৮), আব্দুল কাদির আহম্মদ সুরুজের ছেলে রাসেল (৩৫) কে আশংকা জনক অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া টেঙ্গুরী মহল্লার আব্দুল কাদির আহম্মেদ সুরুজ (৬০) ও কুন্ডুলী মহল্লার আব্দুস সাত্তারকে (৭৫) কেন্দুয়া উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা দেয়া হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শিরা জানান কুন্ডুলী মহল্লার জাকির, দেলোয়ার ও মজিবুরের সঙ্গে টেঙ্গুরী মহল্লার আব্দুর কাদির আহম্মদ সুরুজ গংদের সঙ্গে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলার সূত্রপাত ঘটে। জাকির, মজিবুর ও দেলোয়ার প্রথমে টেঙ্গুরী মহল্লার সন্নিকটে সাউদপাড়া পেট্রোল পাম্পের কাছে গিয়ে রাসেলের ওপর এবং সাউদপাড়া মোড়ে রাসেলের বাবা আব্দুল কাদির আহম্মেদ সুরুজের ওপরও হামলা চালায়। এ ঘটনার খবর পেয়ে টেঙ্গুরী মহল্লার লোকজন এসে তাদের উপর সশস্ত্র হামলা চালায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে পরিস্থিতি সামলে দেন এবং ১১ জনকে আটক করেন। কেন্দুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পাল্টাপাল্টি হামলায় উভয় পক্ষে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। তবে আশংকা জনক অবস্থায় ৬ জনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ১১ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।