আজ মহান সংসদে গেলেন সান্দিকোনার অসীম কুমার উকিল

আজ মহান সংসদে গেলেন সান্দিকোনার অসীম কুমার উকিল

সমরেন্দ্র বিশ্বশর্মা  কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি ॥

একাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে আজ বুধবার মহান সংসদে গেলেন, নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনার অসীম কুমার উকিল। গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৫৯ নেত্রকোনা-৩ আসনে বঙ্গবন্ধু কণ্যা শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হন তিনি। বিজয়ী হবার পর তিনি দলের নেতাকর্মী সহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের পরিষ্কার ভাষায় জানিয়ে দেন কোন সংবর্ধনা নেবেননা তিনি। তাছাড়া ৫ বছর পর কেন্দুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় নিজের অর্থে দলীয় কার্যালয় নির্মান করে দেয়ারও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেয়ার পর তিনি কেন্দুয়া ও আটপাড়া উপজেলা প্রশাসনে উদ্যোগে মতবিনিময় সভায় আগামী দিনের তার কর্ম পরিকল্পনার কথা জানিয়ে দেন। তিনি পৃথক পৃথক মতবিনিময় সভায় দৃঢ়তার সঙ্গে বলেন, টানা ৩ বারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনা এবার দূর্ণীতি ও মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষনা করেছেন। আমরা সকলে মিলেই বঙ্গবন্ধু কণ্যা প্রধানমন্ত্রীর এ ঘোষনা শতভাগ বাস্তবায়ন করতে সকলের সহযোগিতা চাই। মহান জাতীয় সংসদে তার নির্বাচনী এলাকার জনগণের পক্ষে কথা বলার আগে তিনি ছুটে যান তার রাজনৈতিক আদর্শীক পিতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের টুঙ্গীপাড়ার সমাধীসৌধে। সঙ্গে নিয়ে যান বাংলাদেশ যুব মহিলালীগের সাধারন সম্পাদক সাবেক এম.পি অধ্যাপক অপু উকিল সহ কেন্দুয়া আটপাড়া উপজেলার আওয়ামীলীগ দলীয় নেতাদের। টুঙ্গীপাড়ায় বঙ্গবন্ধু মুজিবের সমাধী থেকেই আগামী দিনের দূর্ণীতি ও মাদক মুক্ত সুন্দর বাংলাদেশ গড়ার শপথ নেন তিনি। এই শপথের পর আজ বুধবার মহান জাতীয় সংসদে গিয়ে ইতিহাসের আরেক নতুন অধ্যায়ের সূচনা করছেন তিনি। দলের নেতাকর্মী ও শুভাকাঙ্কিরা আশা করছেন, অসীম কুমার উকিল তার রাজনীতিতে যেমন সততা, নিষ্ঠা ও সাহসীকতার পরিচয় দিয়েছেন, তেমনি মহান সংসদেও গড়বেন নতুন ইতিহাস। ১৯৫৭ সালের ১২ সেপ্টেম্বর নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা গ্রামের ঐতিহ্যবাহী উকিল বাড়িতে সুকুমার উকিল ও মা রেখা রাণী উকিলের ঘর আলোকিত করে যে ফুটফুটে শিশুটি জন্ম নিয়েছিল, সেই শিশুটি আজ শুধু সান্দিকোনার নয় সারা বাংলাদেশের অসীম কুমার উকিলে পরিনত হয়েছে। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। ১৯৭৮-১৯৮০ সাল পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে জগন্নাথ হল শাখার প্রচার সম্পাদক, ১৯৮০-৮১ সাল পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্র-ছাত্রী সংসদ (ডাকসু) এর নির্বাচিত সদস্য, ১৯৮১-৮৩ সাল পর্যন্ত জগন্নাথ হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি, ১৯৮৩-৮৬ সাল পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক, ১৯৮৪-১৯৮৬ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রীলীগের সহ-প্রচার সম্পাদক, ১৯৮৬-১৯৮৯ সাল পর্যন্ত ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক এবং ১৯৮৯-১৯৯০ সাল পর্যন্ত ছাত্রীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদকের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। নব্বই’র স্বৈরাচার বিরুধী গণ আন্দোলনের অন্যতম ভূমিকা পালন করে সারা দেশে সৃষ্টি করেন ছাত্রলীগের গৌরব উজ্জ্বল ইতিহাস। ১৯৯০-২০০২ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক এবং ২০০২-২০০৯, ২০০৯-২০০১২ এবং ২০১২-২০১৬ সাল পর্যন্ত ধারাবাহিক ভাবে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ৩ বারের উপ-প্রচার সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। অসীম কুমার উকিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৮০ সালে পরিসংখ্যানে বি.এস.সি অনার্স এবং ১৯৮১ সালে এম.এস.সি ডিগ্রী লাভ করেন। দীর্ঘ ৪০ বছরের রাজনৈতিক জীবনে রাজপথের লড়াই সংগ্রামের অভিজ্ঞতা নিয়ে ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে তিনি প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়ে আজ বুধবার মহান সংসদে গেলেন অসীম কুমার উকিল।