নেত্রকোনায় সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কে হাঁটুপানি

 নেত্রকোনায় সামান্য বৃষ্টিতেই সড়কে হাঁটুপানি

খলিলুর রহমান শেখ ইকবাল, নেত্রকোনা ঃ সামান্য বৃষ্টিতেই জেলা শহরের বিভিন্ন সড়কে হাঁটুপানি জমে যায়। সড়ক নোংরা, ময়লা-আবর্জনা পানিতে ভেসে যায়। সড়কে সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতার। জেলা শহরের বিভিন্ন এলাকার সড়কে পানি জমার কারনে এলাকাবাসীকে দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে চলাচল করতে হয়।
 এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রোববার দুপুর আড়াইটার দিকে শুরু হয় বৃষ্টি। ১৫ থেকে ২০ মিনিট ভারি বর্ষণের কারনে জেলা শহরের শাহ্ সুলতান রোড, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনের সড়ক, সদর উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের সামনের সড়ক, মোক্তারপাড়া প্রেস ক্লাব সড়ক, জয়নগর এলাকায় হাসপতাল রোডসহ বিভিন্ন সড়কে হাঁটুপানি জমে যায়। সড়কে পানি জমার কারনে স্কুল, কলেজগামী ও বাসায় ফেরার পথে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অফিসগামী লোকজনকে হাঁটুপানি মাড়িয়ে চলাচল করতে হয়। ভারি বর্ষণের কারনে জেলা শহরের জনজীবন বিপর্যন্ত হয়ে পড়ে। জেলা প্রশাসকের অফিস, সার্কিট হাউজ,পুলিশ সুপার অফিস, নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল আঙ্গীনা, জেলা শহরের জয়নগর এলাকায় দত্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে পানি জমে যায়। জেলা শহরের ড্রেনগুলো ময়লা আর্জনায় ভড়ে যাওয়ার কারনে পানি নিস্কাশন ব্যাহত হচ্ছে। এতে করে ড্রেন উপচে রাস্তায়  নোংরা ময়লা- আবর্জনায় সয়লাব হয়ে যায়। কাদা ও ময়লা পানি মাড়িয়ে পথচারীদের চলাচল করতে হয়।
 নেত্রকোনা সরকারি মহিলা কলেজের অনার্স চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী খোশনূর জাহান বলেন, বাসা থেকে বের হলে সড়কে পানির কারনে কাপড়, জুতা ভিজে যায়। চলাচল করতে আমাদের খুব কস্ট হয়। জেলা শহরের খতিবনগুয়া এলাকার বাসিন্দা সুলতান আহমেদ বলেন, সামান্য সময়ের বৃষ্টিতে গুরুত্বপূর্ন এলাকার সড়কগুলো পানিতে তলিয়ে যায়। আমাদেরকে ময়লা পানি মাড়িয়ে অফিস আদালতে যেতে হয়।
 নেত্রকোনা পৌর সভার মেয়র নজরুল ইসলাম খান জানান, ভারি বর্ষণ হলে শহরের কিছু কিছু জায়গায় সাময়িকভাবে পানি জমে। বৃষ্টি কমলে আবার পানি সড়ে যায়।